শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ০৬:২৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
শিক্ষার্থীদের সঙ্গে আলোচনায় বসছে সরকার অস্থিতিশীল পরিস্থিতির কারণে সাময়িকভাবে মোবাইল ইন্টারনেট বন্ধ করা হয়েছে: জানালেন পলক গাজীপুরে তিতাস গ্যাস এর অ’বৈ’ধ লাইন উ’চ্ছে’দ ও দুই লাখ টাকা জ’রি’মা’না আদায় জলঢাকায় শিশুদের মাঝে এ্যাসিসটিভ ডিভাইস বিতরন মহেশপুরে পুকুর খননের নামে ফসলি জমি থেকে বালু উত্তোলন চলছে ধুমধামের সাথে বেলকুচি উপজেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভা অনুষ্ঠিত পাইকগাছায় বিপুল পরিমাণ কারেন্ট জাল জ’ব্দ পাইকগাছায় পানিতে ডু’বে শিশুর মৃ’ত্যু ভারতের সিকিমের প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রীর লা’শ ভেসে এলো লালমনিরহাটে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের সাধারণ সম্পাদকের পদত্যাগ আগামী ২০২৫ সালের মধ্যে নওগাঁ জেলাতে বাল্যবিবাহ সম্পন্ন প্রতিরোধ করার ঘোষণা- রূপান্তর গ্রুপের ভাঙ্গায় আন্দোলনের প্রস্তুতি,ওসির ভূমিকায় ছত্রভঙ্গ- আ’ট’ক ১০ ভাঙ্গায় দুটি বাসের সং’ঘ’র্ষে তিন জন নি’হ’ত, আ’হ’ত ৩০ বৃহস্পতিবার সারা দেশে ‘কমপ্লিট শাটডাউন’ ঘোষণা কোটাবিরোধীদের ভালো কাজের মাধ্যমেই দর্শকের সামনে আসতে চাই:আরাবি চিলমারীতে পানিতে ডুবে লাবণী ১৪ নামের এক কিশোরীর মৃ’ত্যু ৩৫ লাখ টাকার মা’দ’ক’সহ ৬ কারবারি গ্রে’ফ’তা’র বৈদ্যুতিক খুঁটির সাথে মোটরসাইকেলের ধাক্কায় ঝরলো ২ প্রাণ বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা শেখ ফজিলতুন্নেছা মুজিব গোল্ডকাপ অনুষ্ঠিত। পলাশবাড়ীতে গার্ডকে হ’ত্যা করে ৫ টি ব্যটারী চালিত আটো চু’রি

নীলফামারীতে গত কয়েকদিন ধরে চলা শৈত্যপ্রবাহ কেটে গেছে, তবে ঠাণ্ডার দাপট এখনো রয়েছে।

হাছানুর রহমানঃ নিলফামারি জেলা প্রতিনিধি।

প্রচণ্ড শীতে অনেকটা কাবু হয়ে পড়েছে নিলফামারি জেলার বিভিন্ন উপজেলার জনজীবন।
রবিবার সকাল থেকে মেঘাচ্ছন্ন আকাশ আর ঠাণ্ডা বাতাসে হিমশিম খেতে হচ্ছে অত্র জেলার বাসিন্দাদের।
শীতের এই ভাব আরো কয়েকদিন থাকবে।
ডোমার উপজেলার বাসিন্দা মুশফিকুর রহমান বলছেন, ”গত কয়েকদিন ধরে প্রচণ্ড শীত। শীতের সঙ্গে বাতাস, বাসার বাইরেই বের হতে পারছি না। কুয়াশায় চারদিক অনেকটা অন্ধকার হয়ে রয়েছে। বাসার বয়স্করা আর শিশুরা অসুস্থ পড়ছে।”
তিনি বলছেন, ”গতকালের চেয়ে আজ ঠাণ্ডা আরো বেশি পড়েছে। বাধ্য না হলে বাসার কেউ বাইরে বের হচ্ছে না।
অন্যান্য এলাকার তুলনায় জলঢাকায় শীত তুলনামূলক কম পড়লেও এই শৈত্যপ্রবাহে কাবু হয়ে পড়েছে জলঢাকা উপজেলা বাসি।
জলঢাকার বাসিন্দা রতন সরকার বলছেন, ”বাধ্য হয়ে প্রচণ্ড ঠাণ্ডার মধ্যে সিএনজিতে করে লালমনিরহাট জেলা গিয়েছিলাম। এখন ঠাণ্ডা লেগে গেছে, জ্বর জ্বর ভাব। প্রচণ্ড ঠাণ্ডার মধ্যে গতকাল আর আজ বের হইনি। আলমারি থেকে লেপতোশক বের করে ব্যবহার করতে শুরু করেছি।”

নিলফামারি জেলার অনেক স্থানে রাস্তার পাশে মানুষজনকে কাগজ-কাঠ জড়ো করে আগুন পোহাতে দেখা গেছে।
বলছেন, দেশের ওপর দিয়ে একটি যে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ চলছিল, সেটা শেষ হয়ে গেছে। তবে দিনে তাপমাত্রা কম থাকায় তীব্র শীত অনুভূত হচ্ছে। সেটা আরো কয়েকদিন থাকতে পারে।
গতকাল সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছে নিলফামারিতে ১৮.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Our Like Page আমাদের পেজ লাইক করুন
Raytahost Facebook Sharing Powered By : Raytahost.com